শুক্রবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, গ্রীষ্মকাল | ১১ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি

স্কুলছাত্রী অপহরণ ও শিশু নির্যাতন মামলার অাসামী উখিয়ার ছাত্রলীগ নেতা ইসহাক অাটক

ভাষান্তর: | বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी ဗမာစာ ဗမာစာ

অাজিজুল হক রানা:: খুরুশস্কুল থেকে স্কুল ছাত্রীকে অপহরণ করার দায়ে উখিয়ার এক ছাত্রলীগ নেতা অাটক হয়েছে।

গত ২৯ মার্চ ভোরে স্কুল ছাত্রী কনিকা অাক্তারকে অপহরণের দায়ে উখিয়া উপজেলা ফলিয়াপাড়ার নুরুল ইসলামের পুত্র ইসহাককে(২৫) রেজু অামতলী বোনের বাড়িতে থেকে অাটক করেছে উখিয়া থানা পুলিশ। এ সময় অপহৃত কনিকা অাকতারকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে অাসা হয়।

থানায় অভিযোগের সূত্রে জানা যায় খুরুশস্কুল ইসহাকের চাচাত বোনের বিয়ে হওয়ার সুবাদে উখিয়ার ছাত্রলীগ নেতা ইসহাকের নিয়মিত যাতায়াত ছিল। প্রতিমধ্যে দক্ষিণ পেছারঘোনার বাসিন্দা খুরুশস্কুল উচ্চ বিদ্যালের ১০ম শ্রেণী পড়ুয়া ছাত্রী কনিকা অাক্তারের(১৬) উপর লুলুপ দৃষ্টি পড়ে ইসহাকের। কনিকা স্কুল ও প্রাইভেটে যাওয়ার পথে প্রায়শ উত্ত্যক্ত করত ইসহাক। বিষয়টি কনিকা পরিবারকে জানালে ইসহাকের চাচাত বোন নুর জাহানের মাধ্যমে ইসহাকে কয়েকবার সতর্ক করা হয়। এতে ইসহাক ক্ষিপ্ত হয়ে ২০ মার্চ ভোরে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা ইসহাক সহ তার সহযোগিরা প্রাইভেটে যাওয়ার পথে কনিকাকে সিএনজিযোগে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহরণ করার সময় পথচারীরা বাঁধা দিতে গেলে ইসহাকের সাঙ্গপাঙ্গরা চুরি মারার ভয় দেখিয়ে মুহুর্তে সড়কে পড়ে। প্রত্যক্ষদর্শী লোক মারফতে কনিকা অপহরণের বিষয়টি জানতে পেরে অনেক খোঁজাখুজিঁ ও মেয়েকে উদ্ধারে ব্যর্থ হয়ে মেয়েকে ফিরে পেতে ২৮মার্চ কক্সবাজার সদর থানায় অপহরণ,নারী ও শিশু নির্যাতন দমন অাইনে ইসহাকে নং অাসামী করে ইসহাকের ভগ্নিপতি রাশেদ উল্লাহ ও চাচাত বোন নুর জাহানকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেন অপহৃত কনিকার বাবা নিয়ামত উল্লাহ।

এরই প্রেক্ষিতে গত ২৯ মার্চ ভোরে অামতলী এক অাত্বীয়ের বাসা থেকে অপহরণকারী ইসহাককে অাটক করে উখিয়া থানা পুলিশ। এসময় অপহৃত স্কুল ছাত্রী কনিকা অাক্তারকে উদ্ধার করা হয়।

মামলার বাদী কনিকার বাবা নিয়ামত উল্লাহ বলেন অামি পুলিশের সহায়তায় মেয়েকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছি। ১নং অাসামী অাটক হলেও বাকী অাসামীরা অাটক না হওয়ায় এখনো উদ্বেগ,উৎকন্ঠায় অাছি।

এ ব্যাপারে উক্ত মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসঅাই মোঃ অালমগীরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ১নং অাসামী ইসহাককে অাটক ও অপহৃত কনিকাকে উদ্ধার পূর্বক বাকী অাসামীদের অাটকের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে জানান।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *