শুক্রবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, গ্রীষ্মকাল | ১১ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি

খাগড়াছড়িতে সেনাবাহিনী কর্তৃক অভিযানে ১ জন সন্ত্রাসী অস্ত্র গোলাবারুদ ও চাঁদার টাকাসহ আটক

ভাষান্তর: | বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी ဗမာစာ ဗမာစာ

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি::
স্থানীয় সস্ত্রাসী দলের হত্যা, চাঁদাবাজি ও বিভিন্ন সন্ত্রাসীমূলক কর্মকান্ডে সাধারণ জনগণের জীবন যাত্রা দূর্বিষহ হয়ে উঠেছে। এমন কর্মকান্ড নির্মলের লক্ষে খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কর্তৃক গোয়েন্দা ও অপারেশন কার্যক্রম বৃদ্ধি করার ফল শ্রতিতে গত ১ মার্চ ২০২১ তারিখ দীঘিনালা সেনা জোন কর্তৃক একটি সফল অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে ইউপিডিএফ (মূল) দলের সশস্ত্র গ্রুপের ০৪ জন শীর্ষ সন্ত্রাসীকে অস্ত্র, গোলাবারুদ ও বিপুল পরিমাণ চাঁদার টাকাসহ আটক করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার (১০ মার্চ ২০২১) গভীর রাতে বিশেষ গোয়েন্দা সূত্রের মাধ্যমে দীঘিনালা জোন ১ জন সশস্ত্র ইউপিডিএফ সন্ত্রাসী চলাচলের তথ্য প্রাপ্ত হয়্ তথ্যের সত্যতা যাচাই সাপেক্ষে জোনের অধীনন্থ বাবুছড়া ক্যাম্প থেকে সন্ত্রাসী আটক করার লক্ষ্যে অন্যান্য নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের সমন্বয়ে এ্যামবুশ পরিচালনা করা হয়।
রাত ১২টার দিকে বাবুছড়া হতে দীঘিনালা একটি মটরসাইকেল আরোহীদের চ্যালঞ্জে করলে উক্ত বাইক হতে ০১ জন লাফ দিয়ে পলায়নের চেষ্টা করলে অপারেশন দল কৃর্তক ধরা পরে। আটক ব্যক্তির নাম সুনীল ব্যক্তির নাম সুনীল চাকমা ওরফে সুভাষ (২৭) । আভিযানিক দল তাৎক্ষণিক তল্লাশী কার্যক্রম পরিচালনা করার মাধ্যমে উক্ত সন্ত্রাসীর কাছ থেকে ১টি চায়না পিস্তল, ১ টি ম্যাগাজিন, ৫ রাউন্ড এ্যামোনিশন, নগদ প্রায় ১৭ হাজার টাকাসহ ২টি মোবাইল ও চাঁদা আদায়ের রশিদ উদ্ধার করে।
জানা গেছে অবৈধ চাঁদার জন্য সে দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় সাধারণ মানুষকে হয়রানি এবং নির্যাতন করে আসছিলো। তার আটকের খবরে জনমনে স্বস্তি ফিরে এসেছে। এলাকার বিশিষ্ট নাগরিক সমাজ এবং সাধারণ মানুষ মনে করেছেন, নিরাপত্তা বাহিনী উক্ত সস্ত্রাসীর মত সকল সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় নিয়ে এলেই পাহাড়ে শান্তি ফিরে আসবে । ভবিষ্যতে নিরাপত্তা বাহিনী এবং প্রশাসনের এমন আইনের প্রয়োগ চলমান রাখার দাবি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *